নিজের বদলে যাওয়ার কারণ জানালেন লিটন

টেস্টের ফর্ম ওয়ানডেতে, ওয়ানডের ফর্ম টি-টোয়েন্টিতে টেনে এনেছেন লিটন দাস। শেষ এক বছরে সাদা পোশাকে ব্যাট হাতে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিজের খেলা শেষ দুই ওয়ানডের একটিতে সেঞ্চুরি, অন্যটিতে ফিফটি। এবার টি-টোয়েন্টি সিরিজের শুরুটাও দুর্দান্ত হলো তার। ৪৪ বলে খেললেন ৬০ রানের অনবদ্য এক ইনিংস। বর্তমান সময়ে কি ব্যাট হাতে সেরা ছন্দে আছেন লিটন?


আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৬১ রানের জয়ের পর লিটন জানালেন, সেরা ছন্দে কি না জানেন না, তবে আগের চেয়ে বেশ পরিণত তিনি। আগে নিজের দায়িত্ব ওভাবে বুঝতেন না, এখন আস্তে আস্তে বোঝা শুরু করেছেন লিটন।

সংবাদমাধ্যমকে লিটন বলেন, ‘এখন বুঝা শুরু করছি আস্তে আস্তে, আগে হয়তো ওভাবে বুঝতাম না। এটা মানুষেরই স্বভাব, আপনি যতো খেলবেন ততোই শিখবেন। আমার মনে হয় এ জায়গায় আমি চেষ্টা করেছি, ভবিষ্যতে যাতে টিমকে সাহায্য করা যায়।’

যোগ করেন লিটন, ‘সবাই বলে ক্রিকেটটা মাথার খেলা। তো এক্সাক্টলি আপনি যদি মাথা দিয়ে চিন্তা করেন, তাহলে আপনার হাতে অনেক সময় আছে। আমার যে ভূমিকা, তাতে কোনোদিন সফল হবো, কোনোদিন হবো না। বিশ্বকাপে ব্যর্থ হয়েছি। সেটা অতীত। এ ম্যাচে সুযোগ পেয়েছি, ভালো খেলার চেষ্টা করেছি।’

টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে মানিয়ে নিতে বেশ বেগ পেতে হচ্ছিল লিটনের। সবশেষ বিশ্বকাপটা ঠিকঠাক হয়নি। এরপর ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে বাদ পড়েন। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের সবশেষ মৌসুমে নিজেকে প্রমাণ করে আবার জায়গা পান জাতীয় দলে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে যে অর্ধশতক পেয়েছেন লিটন, সেটি এসেছে ১৬ ইনিংস পর। তবে এদিন ওপেনিংয়ে নয়, তিনে খেলেন তিনি।

এ নিয়ে অবশ্য কোনোপ্রকার আলোচনায় যেতে রাজি নন লিটন, ‘আমি ব্যাটিং পজিশন নিয়ে আর্গুমেন্ট বা কিছুতে যেতে চাই না। আমার লক্ষ্য থাকে খেললে টিমকে সাহায্য করা, সেটা যেভাবেই হোক। টিম ম্যানেজমেন্ট যদি বলে একে ব্যাটিং করতে, তো একে, যদি বলে সাতে তো সাতে। কথা হচ্ছে এটা আমার ওপর দিয়ে যাচ্ছে কি না। টিম ম্যানেজমেন্ট ভালো বুঝবে, আমি সাতের প্লেয়ার কি না। আমাকে কাল যদি বলা হয় ওপেন করতে, করব। এতদিন কিপিং করি নাই, আজকে করতে বলেছে করেছি। যখন যেটা বলবে, চেষ্টা করব ১০০ ভাগ দেওয়ার। না হলে কিছু করার নেই।

মেরাজুল কনক

আমি মেরাজুল ইসলাম, একজন বাংলাদেশী ব্লগার। ব্লগিং এর পাশাপাশি আমি ওয়েবসাইট ডিজাইন, কন্টেন্ট রাইটিং, কাস্টমাইজ সহ ওয়েব রিলেটেড অনেক কাজ করি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন