আরেকটি রেকর্ডেও প্রথম সাকিব

কোনো কীর্তিতে ‘প্রথম’ ক্রিকেটার—সাকিব আল হাসানের জন্য ব্যাপারটা নতুন নয়। তেমনই আরেকটি রেকর্ড গড়লেন তিনি। ছেলেদের স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে টানা পাঁচ ম্যাচে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার জিতলেন এই অলরাউন্ডার। বিপিএলে গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে মিনিস্টার ঢাকার বিপক্ষে ফরচুন বরিশালের জয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন সাকিব

১২৮ রান তাড়া করতে নেমে বরিশাল ম্যাচটি জিতেছে ৮ উইকেটে, ২৭ বল বাকি রেখে। এমন অনায়াস জয়টা এসেছে সাকিবের ২৯ বলে অপরাজিত ৫১ রানের ইনিংসে ভর করেই। এর আগে বোলিংয়েও ৪ ওভারে ২১ রান দিয়ে নিয়েছেন ১ উইকেট।

এবার বিপিএলের শুরু থেকেই বোলিংয়ে ধারাবাহিক ছিলেন সাকিব। তবে প্রথম চার ম্যাচে রানের দেখা পাননি সেভাবে। আউট হয়েছিলেন ১৩, ২৩, ১ ও ৯ রান করে। চট্টগ্রাম পর্বে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে চারে নেমে করেন ২৭ বলে ৪১ রান, সাকিবের ব্যাট এরপর থেকে হাসছেই। সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে তাঁর পারফরম্যান্স দাঁড়াল এমন—৪১ রান ও ১০ রানে ২ উইকেট, ৫০ রান ও ২৩ রানে ৩ উইকেট, ৫০ রান ও ২০ রানে ২ উইকেট, ৩৮ রান ও ২৩ রানে ২ উইকেট এবং অপরাজিত ৫১ রান ও ২১ রানে ১ উইকেট।

সব মিলিয়ে সাকিব এবারের বিপিএলে ৯ ম্যাচে করেছেন ২৭৬ রান, ৩৪.৫০ গড়ে। রান তুলেছেন ১৪৬.৮০ স্ট্রাইক রেটে। আর বোলিংয়ে নিয়েছেন ১৫ উইকেট, ১১.৭৩ গড়ে। ওভারপ্রতি দিয়েছেন মাত্র ৪.৯৫ করে রান। সর্বোচ্চ রান-সংগ্রাহকের তালিকায় সাকিব আছেন চার নম্বরে, উইকেটশিকারির তালিকায় আছেন তিনে।

ছেলেদের স্বীকৃত টি-টোয়েন্টিতে টানা চার ম্যাচে ম্যাচসেরা হওয়ার কীর্তি ছিল পাঁচজনের—মার্কাস ট্রেসকোথিক, চার্লস ল্যাঙ্গেভেল্ট, শেন ওয়াটসন, ডেভিড ওয়ার্নার ও দীনেশ নাকরানির। তাঁদের সবাইকে ছাড়িয়ে গেলেন সাকিব।

বিপিএলে সবচেয়ে বেশিবার ম্যান অব দ্য ম্যাচ হওয়ার রেকর্ডটা আগে থেকেই ছিল তাঁর, এবার সেটিকে নিয়ে গেলেন ১৪-তে। দুইয়ে থাকা মাহমুদউল্লাহ ম্যাচসেরা হয়েছেন ৯ বার।

রেকর্ড গড়ার পর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সাকিব বিপিএলের পরের দুই ম্যাচেও নিজের ফর্মটা ধরে রাখার আশার কথা শুনিয়েছেন, ‘বোলিংটা সব সময়ই ভালো ছিল, সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে ব্যাটিংটাও ভালো হচ্ছে আমার। আশা করি পরের দুই ম্যাচেও হবে।’

অবশ্য দাপুটে জয়ের দিনে নিজ দলের অন্য বোলারদেরও কৃতিত্ব দিয়েছেন বরিশাল অধিনায়ক, ‘সব বোলারই নিজেদের কাজটা একেবারে ঠিকঠাক করেছে, আমরা উইকেট নিতে চাচ্ছিলাম। আমাদের বোলিং বিভাগটা বেশ আগ্রাসী। তারা ১৪৫ করতে পারত, তবে এর আগেই আটকে রাখার জন্য বোলারদের কৃতিত্ব দিতে হয়।’

মেরাজুল কনক

আমি মেরাজুল ইসলাম, একজন বাংলাদেশী ব্লগার। ব্লগিং এর পাশাপাশি আমি ওয়েবসাইট ডিজাইন, কন্টেন্ট রাইটিং, কাস্টমাইজ সহ ওয়েব রিলেটেড অনেক কাজ করি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন