রান পেলে ইবাদত কিন্তু সেঞ্চুরি পেলেন না কোহলি!

কেপটাউনে তৃতীয় ও শেষ টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হয়েছে ভারত। টস জিতে ব্যাটিং করে সুবিধা করতে পারেনি ভারত। প্রথম দিনেই ২২৩ রানে অলআউট হয়েছে সফরকারীরা। চোটে পড়ে জোহানেসবার্গ টেস্টে ছিলেন না নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। একাদশে ফিরেই রানের দেখা পেয়েছেন কোহলি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৯ রান এসেছে তাঁর ব্যাট থেকে। জবাবে শুরুটা ভালো হয়নি প্রোটিয়াদেরও। ১৭ রান তুলতেই অধিনায়ক ডিন এলগারের উইকেট হারিয়েছে তারা।

রান পেলে ইবাদত কিন্তু সেঞ্চুরি পেলেন না কোহলি!

আরও একবার সেঞ্চুরির অপেক্ষা বাড়ান কোহলি। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতনের মিছিলে নবম ব্যাটার হিসেবে আউট হন তিনি। কাগিসো রাবাদার চতুর্থ শিকার হওয়ার আগে উইকেটে ভালোই সংগ্রাম করেছেন ভারত টেস্ট অধিনায়ক। ২০১ বলের ইনিংসে অফ স্টাম্পের বাইরের বল খেলা থেকে নিজেকে বিরত রাখার কঠিন কাজটা করেছেন। যেটার জন্য বারবার উইকেট দিয়ে আসতে হচ্ছিল তাঁকে। তবে শেষ পর্যন্ত অবশ্য বহুল কাঙ্ক্ষিত সেঞ্চুরিটা পাওয়া হলো কোহলির। 

কলকাতার ইডেন গার্ডেনে ২০১৯ সালের নভেম্বরে বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বশেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন। এরপর গত দুই বছরের বেশি সময়ে সেঞ্চুরির উদ্যাপনে ব্যাট তোলা হয়নি এক সময় সেঞ্চুরিকে ডালভাত বানিয়ে ফেলা কোহলির। সেই টেস্টের একমাত্র ইনিংসে ১৩৬ রান করা কোহলি বাংলাদেশ পেসার ইবাদত হোসেনের বলে আউট হয়েছিলেন। 

মজার ব্যাপার হচ্ছে, কোহলি যেমন এরপর আর সেঞ্চুরির দেখা পাননি, সেই টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১ রান করা ইবাদতও এই সময়ে ১০ ইনিংসে রানের দেখা পাননি। টানা শূন্যের বিশ্ব রেকর্ডই তো করে ফেলেছেন। সেই ইবাদত আজ ক্রাইস্টচার্চে টানা শূন্যের বৃত্ত ভেঙেছেন। 

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হওয়ার আগে করেন চার রান। ইবাদতের রান পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কোহলির সেঞ্চুরি পাওয়া নিয়ে আলোচনায় সরব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। সেটা আর হলো কই? তবে এখনো দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরির সুযোগ থাকছে কোহলির।

মেরাজুল কনক

আমি মেরাজুল ইসলাম, একজন বাংলাদেশী ব্লগার। ব্লগিং এর পাশাপাশি আমি ওয়েবসাইট ডিজাইন, কন্টেন্ট রাইটিং, কাস্টমাইজ সহ ওয়েব রিলেটেড অনেক কাজ করি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন